সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
রূপসী পাড়ায় হত-দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ- কুষ্টিয়ায় দৌলতপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা করার পরও চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন- কুষ্টিয়া এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে অবৈধ অর্থ উপার্জনের অভিযোগ- নওগাঁ রানীনগরে রেলওয়ে জায়গার দোকান ঘর উচ্ছেদে প্রায় ১৬ কোটি টাকার ক্ষতি পথে বসেছে ২৮৪ পরিবার- কুড়িগ্রামে মহিলা পরিষদের নারী ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন- কালিয়ায় বালু ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা- দশমীর চিকিৎসায় আবারো আর্থিক সহায়তা দিলেন লৌহ মানব মোহাম্মদ আলী চৌধুরী- ঢাকায় শুভ হত্যার রহস্যের সুষ্ঠু তদন্ত দাবি কালীগঞ্জে মানববন্ধন- কৃষি বিল নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন বিরোধীরা-বিজেপি নেতা জয় প্রকাশ মজুমদার কালীগঞ্জে সরকারি চাকরি দেওয়ার নামে তপন সাধুর প্রতারণা! কুষ্টিয়ার দাদা রাইস ব্রান্ডের নামে বরিশাল বাজারে যাচ্ছে নিন্মমানের চাল-
ঘোষণা:

কুষ্টিয়ার সাংবাদিকতার বাতিঘর ও কলম সৈনিক ওয়ালিউল বারী চৌধুরী আর নেই!

কে এম শাহীন রেজা কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি,সময়ের পথঃ-

কুষ্টিয়ার সাংবাদিকতার বাতিঘর, সাপ্তাহিক ইস্পাত পত্রিকার সম্পাদক আলহাজ্ব ওয়ালিউল বারী চৌধুরী কিছুক্ষন আগে ইন্তেকাল করেছেন। তিনি দীর্ঘদিন অসুস্হ ছিলেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন) আজ (২৫ জুলাই, শনিবার) সন্ধ্যায় মজমপুরস্থ নিজ বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন৷ মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯০ বছর৷
মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের নিকট তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া চাওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালীন মুক্তাঞ্চল থেকে প্রকাশিত সর্বপ্রথম পত্রিকা ‘স্বাধীন বাংলা’র সম্পাদক, বৃহত্তর কুষ্টিয়া অঞ্চল থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক ‘ইস্পাত’ পত্রিকা ও স্বাধীনতাপূর্ব সাপ্তাহিক ‘মশাল’ পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক বর্ষীয়ান সাংবাদিক আলহাজ্ব ওয়ালিউল বারী চৌধুরী দীর্ঘদিন যাবত বার্ধক্যজনিত নানা অসুখে ভূগছিলেন। মরহুম ওয়ালিউল বারী চৌধুরীর সম্পাদনায় ১৯৭১ সালের ১৫ এপ্রিল নদীয়া জেলার রানাঘাট থেকে ‘স্বাধীন বাংলা’ নামে মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রথম পাক্ষিক পত্রিকা প্রকাশিত হয়। এর আগে ১৯৬৪ সালের দিকে তিনি ‘সাপ্তাহিক মশাল’ নামে আরেকটি মাসিক পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক ছিলেন। স্বাধীনতা উত্তর ‘পাক্ষিক সমীক্ষা’ পত্রিকার প্রকাশক ছিলেন৷ ‘ইস্পাত’ বাদে ১৯৭৫ সালে দেশের সকল পত্রিকার সাথে এগুলো বন্ধ হয়ে যায়। তবে সেসময় ‘মাসিক ইস্পাত’ পত্রিকা চালু থাকে। যা খুলনা বিভাগের মধ্যে একমাত্র পত্রিকা ছিল। ১৯৭৫ সালের ১৭ নভেম্বর ‘ইস্পাত’ পত্রিকা মাসিক থেকে সাপ্তাহিকে উন্নীত হয়ে প্রকাশিত হতে থাকে। সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন৷ আমি কুষ্টিয়ান পরিবারের পক্ষ থেকে তাঁর বিদ্বেহী আত্মার মাগফিরাত কামনাসহ শোক সন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন