সোমবার, ১০ অগাস্ট ২০২০, ০৯:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
রূপসী পাড়ায় হত-দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ- কুষ্টিয়ায় করোনাকালীন সহায়তা পেলেন ৬৫ জন সাংবাদিক- কুড়িগ্রামের চিলমারীতে তথ্য অধিকার আইনে আবেদন করলেও তথ্য দেয়নি সমাজসেবা কর্মকর্তা- করোনা যুদ্ধে জয়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মতিয়ার রহমানকে ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন- লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে জাহেদুল ইসলাম (৪৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে- রামগড় ১নং ইউপি চেয়ারম্যান স্থায়ী বাসিন্দা থেকে হোক এলাকা বাসীর প্রানের দাবী- নগরীতে অস্বাস্থ্যকর ও অবৈধভাবে ভোজ্য তেল উৎপাদন: ২ লক্ষ টাকা অর্থদন্ড- নিজের প্রণোদনার টাকা চিত্র সাংবাদিকদের উপহার দিয়ে মহানুভবতার পরিচয় দিলেন সাংবাদিক রেজাউল করিম মানিক- নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার বালুভড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ১৭ হাজার টাকার বিনিময়ে ধর্ষককে ছেড়ে দিলো- নাটোরের নলডাঙ্গায় পানিবন্দি ১০০০পরিবারের মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রি বিতরণ- কুষ্টিয়ায় নবনির্মিত বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল’র উদ্বোধন করলেন হানিফ এমপি-
ঘোষণা:

ছাত্রীর সঙ্গে অশ্লীল প্রেমালাপের দায়ে ইবি অধ্যাপককে শোকজ-

কে এম শাহীন রেজা কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি,সময়ের পথঃ-

ছাত্রীর সঙ্গে অশ্লীল প্রেমালাপের অভিযোগের দায়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমানকে শোকজ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একইসঙ্গে ওই শিক্ষককে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রীয় মিলনায়তনের (টিএসসিসি) পরিচালকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে।

আজ শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশ থেকে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

অফিস আদেশে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান ও এক নারী শিক্ষার্থীর মধ্যে কথোপকথনের একাধিক অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তা কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হয়।
অধ্যাপক মিজানুর রহমান ও নারী শিক্ষার্থীর মধ্যে ফাঁস হওয়া অডিও ক্লিপে যেভাবে অশ্লীল ও আপত্তিকর কথাবার্তা হয়েছে তাতে শিক্ষক সমাজসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমুর্তি এবং শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর মধ্যকার সম্পর্কের পবিত্রতা ক্ষুন্ন হয়েছে।

এদিকে, ঘটনা তদন্তে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এতে আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. হালিমা খাতুনকে আহ্বায়ক এবং দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. শেলীনা নাসরিন ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক সাইফুল ইসলামকে কমিটির সদস্য করা হয়েছে।

এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী বলেন, আমরা তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। আগামী সাত দিনের মধ্যে তাকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। তিনি জবাব দিলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করব এবং ঐ ছাত্রীকেও তদন্ত কমিটি অনুসন্ধান করবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন