বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
রূপসী পাড়ায় হত-দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ- নাটোরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাম্পেইন উপলক্ষে কর্মশালা- চালের দাম বাড়ায় কুষ্টিয়া মিল মালিকদের তলব- কুষ্টিয়া খোকসা উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মবার্ষিকী পালিত- নওগাঁয় ডিবি পুলিশের পৃথক পৃথক অভিযানে মাদকসহ ৭জন মাদক ব্যবসায়ী আটক- কালিয়ায় শেখ হাসিনার জন্মদিন পালিত- কুষ্টিয়ায় জেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন পালিত- প্রাধানমন্ত্রীর ৭৪ তম জম্মদিন উপলক্ষে কুষ্টিয়া খোকসা ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন – শাহেদ ভদ্রবেশী ধুরন্ধর তাকে ক্ষমা করা যায় না : আদালত চিলমারীতে প্রধানমন্ত্রীর ৭৪তম জন্মদিন পালিত- চিলমারীতে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালন-
ঘোষণা:

জাতীয় ক্ষমা চাইলেন উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক: এডিস মশাবাহিত ভাইরাস জ্বর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের পরিবারের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বুধবার (৭ আগস্ট) গুলশান ডিএনসিসি নগর ভবনে মশক নিধন এবং কীটনাশক ছিটানো কার্যক্রমের অগ্রগতি সম্পর্কে জানাতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ছে ঢাকাসহ সারা দেশে। প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে কেউ না কেউ মারা যাচ্ছেন। এমন পরিস্থিতিতে যত দ্রুত সম্ভব ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব থেকে দেশকে মুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুস্পষ্ট নির্দেশনা দিয়েছেন।

সরকারি সব সংস্থা ও জনগণের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এ পরিস্থিতি থেকে মুক্ত হতে পারব বলে আশা করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

সরকারি স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেল্থ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুমের তথ্যানুসারে, গত ১ জানুয়ারি থেকে ৬ আগস্ট পর্যন্ত সারা দেশের হাসপাতালে প্রায় ৩০ হাজার ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২১ হাজার ৯২১ জন। বর্তমানে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৭ হাজার ৯৬৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ২ হাজার ৩৪৮ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৮৩, মিটফোর্ডে ১০৪, ঢাকা শিশু হাসপাতালে ৩৮, শহীদ সোহরাওয়ার্দীতে ৮৬, বারডেমে ১৯, বিএসএমএমইউয়ে ৪৩, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ২৬, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২১, বিজিবি হাসপাতালে ৭, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ৪২ ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ৪৮ জন ভর্তি হন। এছাড়া বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ৪৬১ ও ঢাকা ছাড়া দেশের অন্যান্য বিভাগে ১ হাজার ৬৪ জন ভর্তি হন।

সরকারি হিসাবে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ১৮ জন (এপ্রিল ২ জন, জুন তিনজন ও জুলাই মাসে ১৩ জন) বলা হলেও বেসরকারি হিসাবে এর সংখ্যা তিনগুণের বেশি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন