বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঘোষণা:

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলে যুক্ত হল ১০০ কিলোমিটার গতি সম্পন্ন ইঞ্জিন-

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্টঃ-রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান যান্ত্রিক প্রকৌশলী ফকির মো. মহিউদ্দিন বলেন, কোরিয়া থেকে আমদানি করা এসব ইঞ্জিন ১০০ কিলোমিটার গতি সম্পন্ন। যাত্রীরা আগের চেয়ে কম সময়ে গন্তব্যে পৌঁছবেন। যাত্রীবাহী ট্রেনে ছাড়াও পণ্যবাহী ট্রেনেও কিছু ইঞ্জিন যুক্ত করা হবে। এতে রেলওয়ের রাজস্ব আয়ও বাড়বে। গত বুধবার (০৭ অক্টোবর) রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন এসব ইঞ্জিনের ট্রায়াল রান উদ্বোধন করেন। কোরিয়া থেকে আমদানি করা এসব ইঞ্জিন যাত্রীবাহী ট্রেন ছাড়াও পণ্যবাহী ট্রেনেও যুক্ত করা হবে। ফলে পণ্যবাহী ট্রেন থেকে আগের চেয়ে দ্বিগুণ রাজস্ব আয়ের আশা করছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা। রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, কোরিয়া থেকে কিছুদিনের মধ্যে প্রকৌশলী দলের সদস্যরা চট্টগ্রামে আসবেন। তারা আসার পরপরই শুরু হবে ইঞ্জিনের কমিশনিং। প্রতিটি ইঞ্জিন কমিশনিং করতে কমপক্ষে এক সপ্তাহ সময় লাগে। কমিশনিং শেষে পাহাড়তলী ডিজেল শপ থেকে চিনকি আস্তানা স্টেশন পর্যন্ত প্রায় ৭০ কিলোমিটার লাইট ট্রায়ালে যাবে ইঞ্জিনগুলো। ট্রায়ালে শতভাগ কার্যকর প্রমাণ হলে ইঞ্জিনগুলো যাত্রীবাহী আন্তঃনগর ট্রেনের সঙ্গে যুক্ত হবে। কোচ কম্পোজিশন অনুযায়ী ১৮টি কোচ প্যাসেঞ্জার বহন ক্ষমতার ওজনের বালুর বস্তা দিয়ে লোড ট্রায়ালও করা হবে। এসব মিটারগেজ (এমজি) ডিজেল ইলেকট্রিক ইঞ্জিন হুন্দাই রোটেন কোম্পানির কাছ থেকে কেনা হয়েছে। এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচলের জন্য ৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে এসব ইঞ্জিন কেনা হয়। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান যান্ত্রিক প্রকৌশলী ফকির মো. মহিউদ্দিন বলেন, কোরিয়া থেকে আমদানি করা এসব ইঞ্জিন ১০০ কিলোমিটার গতি সম্পন্ন। যাত্রীরা আগের চেয়ে কম সময়ে গন্তব্যে পৌঁছবেন। যাত্রীবাহী ট্রেনে ছাড়াও পণ্যবাহী ট্রেনেও কিছু ইঞ্জিন যুক্ত করা হবে। এতে রেলওয়ের রাজস্ব আয়ও বাড়বে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন