সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
কুষ্টিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা রোধ সেমিনারে এমপি হানিফ ফুলবাড়ীতে করোনা নমুনা সংগ্রহের বুথ ভেঙ্গে চুরমার তদন্ত কমিটি গঠন। দেড়শ বছরেরও বেশী সময় ধরে এক আঙিনায় মসজিদ-মন্দির। এ যেন ধর্মীয় সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। আসল পুলিশের হাতে ৪ ভুয়া পুলিশ আটক ভক্ত হবি তো, বোকা হবি কেন? মাদারীপুরে আড়িয়াল খাঁ’র নদী ভাঙ্গনে ৬টি ঘর,৩শ’মিটার সড়ক ও ইটভটার এক অংশ বিলীন। শারদীয় দৃর্গা পুজার নবমীর দিনে পুজা মন্ডব ছিল জন শুন্য কুষ্টিয়া দৌলতপুর মহিষকুন্ডির মাদক ব্যবসায়ীরা এখন ত্রাস: বাধা দিলেই মারধরসহ প্রাণনাশের হুমকি নওগাঁ দুবলহাটি নুরুলের হোমিও মাদক সেবন করে অন্ধ হয়ে মারা গেছে ১১ জন, অন্ধ হয়ে মৃত্যুর পথোযাত্রী-৪ নওগাঁ দুবলহাটি নুরুলের হোমিও মাদক সেবন করে অন্ধ হয়ে মারা গেছে ১১ জন, অন্ধ হয়ে মৃত্যুর পথোযাত্রী-৪
ঘোষণা:

কুষ্টিয়া দৌলতপুরের হাসিনুরের হত্যাকারী ও পরিকল্পনাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করা হবে : বাদশাহ্ এমপি

কে এম শাহীন রেজা কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি,সময়ের পথঃ-


কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. সরওয়ার জাহান বাদশাহ্ তার ফুপাতো ভাই হাসিনুর রহমান হত্যাকান্ডের শোক সভায় খুনের মদদদাতা ও পরিকল্পনাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করে তাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, এই হত্যাকান্ড কোন সাধারণ হত্যাকান্ড নয়। এই হত্যাকান্ডের পরপরই অপপ্রচার চালানো হয়েছে মাছওয়ালা মজিবর রহমানের প্রতিশোধ নিতে এ হত্যাকান্ড। কিন্তু এটা অপপ্রচার, মিথ্যা ও উদ্দেশ্যমূলক। এটা একটি রাজনৈতিক হত্যাকান্ড। এর পেছনের ষড়যন্ত্রকারী ও পরিকল্পনাকারী রয়েছে।

তিনি বলেন, আমাকে ও আমার পরিবারকে বিতর্কিত করার জন্য সুপরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে। পেছন থেকে শক্তি যুগিয়ে পরিকল্ডপনা করে সুপরিকল্পিতভাবে নৃশংস এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে যা কখনও মেনে নেওয়া যাবে না।

তিনি হাসিনুর রহমান হত্যার মদদদাতা ও রাজনৈতিক পরিকল্পনাকারীদের চিহ্নিত করে তাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে আজ বৃহস্পতিবার ৩ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি বাদশাহ্ এসব কথা বলেন।

দৌলতপুর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মঈন উদ্দিন মোহনের সভাপতিত্বে শোক সভায় বক্তব্য রাখেন, ভেড়ামারা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান মিঠু, মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন, দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালী খাতুন আলেয়া, দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. ছাদিকুজ্জামান খান সুমন, মুক্তিযোদ্ধা হায়দার আলী, দৌলতপুর কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সরকার আমিরুল ইসলাম, দৌলতপুর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমগীর, সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি সরদার আতিয়ার রহমান আতিক, দৌলতপুর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের, ওরুশ কবিরাজ, যুবলীগ নেতা ওয়াসিম কবিরাজসহ অওয়ামী লীগ দলীয় নেতৃবৃন্দ ও এলাকার সুধীজন।

উল্লেখ্য, ২৯ আগষ্ট শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে নিজ বাড়ির পার্শ্ববতী ফিলিপনগর ইউনিয়নের ইসলামপুর ঘোষপাড়া মোড়ে পদ্মা নদীর ধারে হাসিনুর রহমান মাছ ক্রয় করতে গেলে মজিবর রহমান পেছন দিক থেকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে হাসিনুর রহমানকে ধারাল হাসুয়া দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপায়।

এসময় হাসিনুর রহমান মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে সেখানে তিনি মারা যায়। খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ইসলাম ঘোষপাড়ায় অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে ঘাতক মজিবর রহমানকে আটক করেছে। সে ইসলামপুর ঘোষপাড়া এলাকার মৃত মতালি মিস্ত্রির ছেলে।

হত্যার এ ঘটনায় শনিবার রাতে নিহত হাসিনুর রহমানের মামাতো ভাই আব্দুল জব্বার ওরফে জব্বার পুলিশ বাদী হয়ে আটক মজিবর রহমান ও তার ছেলে জাহাঙ্গীরসহ সহ অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনকে আসামী করে দৌলতপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। হত্যার ঘটনায় প্রধান আসামী মজিবর রহমান আটক হলেও অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন