সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
কুষ্টিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা রোধ সেমিনারে এমপি হানিফ ফুলবাড়ীতে করোনা নমুনা সংগ্রহের বুথ ভেঙ্গে চুরমার তদন্ত কমিটি গঠন। দেড়শ বছরেরও বেশী সময় ধরে এক আঙিনায় মসজিদ-মন্দির। এ যেন ধর্মীয় সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। আসল পুলিশের হাতে ৪ ভুয়া পুলিশ আটক ভক্ত হবি তো, বোকা হবি কেন? মাদারীপুরে আড়িয়াল খাঁ’র নদী ভাঙ্গনে ৬টি ঘর,৩শ’মিটার সড়ক ও ইটভটার এক অংশ বিলীন। শারদীয় দৃর্গা পুজার নবমীর দিনে পুজা মন্ডব ছিল জন শুন্য কুষ্টিয়া দৌলতপুর মহিষকুন্ডির মাদক ব্যবসায়ীরা এখন ত্রাস: বাধা দিলেই মারধরসহ প্রাণনাশের হুমকি নওগাঁ দুবলহাটি নুরুলের হোমিও মাদক সেবন করে অন্ধ হয়ে মারা গেছে ১১ জন, অন্ধ হয়ে মৃত্যুর পথোযাত্রী-৪ নওগাঁ দুবলহাটি নুরুলের হোমিও মাদক সেবন করে অন্ধ হয়ে মারা গেছে ১১ জন, অন্ধ হয়ে মৃত্যুর পথোযাত্রী-৪
ঘোষণা:

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের পর অন্তঃস্বত্তা-

কে,এম,শাহীন রেজা কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি,সময়ের পথঃ-

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় অষ্টম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী (১৪) জোরপূর্বক ধর্ষণের শিকার হয়ে দুই মাসের অন্তঃস্বত্তা হয়েছে।ঘটনাটি উপজেলার সদকী ইউনিয়নের খোর্দ্দ তারাপুর এলাকায় ঘটেছে।ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রীকে একই এলাকার মৃত গণি শেখের ছেলে উকিল শেখ (৩৫) নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।একাজে সহায়তা করেছে ওই এলাকার মৃত ইসমাইলের ছেলে মোঃ আলম (৪০)।

ধর্ষিতার পরিবার জানান, গত ২৮ মে মেয়েটি প্রাইভেট পড়ার উদ্দ্যেশে বাড়ি থেকে বের হয়ে রাস্তায় গেলে পরিকল্পিতভাবে আলম মুখচেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষক উকিল শেখের কাছে নিয়ে যায় এবং উকিল তার নিজ ঘরে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ায় বিষয়টি কাউকে না জানালে ঘটনার দুই মাস পরে বমি,মাথাঘোরা ও পেটের ব্যথা উঠলে স্থানীয় এক ডায়াগোনষ্টিক সেন্টারে আল্ট্রাসনোগ্রাম করা হয় এবং রিপোর্ট দেখে চিকিৎসক বলেন মেয়েটি দুইমাসের অন্তঃস্বত্তা।

এবিষয়ে ধর্ষিতার সৎ মা বলেন, প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় আলমের সহায়তায় উকিল তার ফাঁকা বাড়িতে নিজ ঘরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ায় মেয়েটি ঘটনার ধামাচাপা দেয়।কিন্তু ঘটনার দুইমাস পরে হঠাৎ বুমি,পেটে ব্যাথা মাথা ও অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় ডায়াগোনষ্টিক সেন্টারে পরীক্ষা করলে দুইমাসের অন্তঃস্বত্তা হওয়ার রিপোর্ট আসে এবং চক্ষু লজ্জার ভয়ে কাউকে না জানিয়ে বাচ্চাটি নষ্ট করা হয়।কিন্তু বর্তমানে আসামী ভিডিও ও ছবি আছে বলে ব্লাকমেইল করতেছে এবং নানাবিধ ভয়ভীতি দেখাচ্ছে।তিনি আরো বলেন, থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।

এবিষয়ে থানার ওসি মজিবুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় এখনও লিখিত অভিযোগ পাইনি।অভিযোগ পেলে তদন্ত স্বাপক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন