সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
রূপসী পাড়ায় হত-দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ- কুষ্টিয়ায় দৌলতপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা করার পরও চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন- কুষ্টিয়া এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে অবৈধ অর্থ উপার্জনের অভিযোগ- নওগাঁ রানীনগরে রেলওয়ে জায়গার দোকান ঘর উচ্ছেদে প্রায় ১৬ কোটি টাকার ক্ষতি পথে বসেছে ২৮৪ পরিবার- কুড়িগ্রামে মহিলা পরিষদের নারী ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন- কালিয়ায় বালু ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা- দশমীর চিকিৎসায় আবারো আর্থিক সহায়তা দিলেন লৌহ মানব মোহাম্মদ আলী চৌধুরী- ঢাকায় শুভ হত্যার রহস্যের সুষ্ঠু তদন্ত দাবি কালীগঞ্জে মানববন্ধন- কৃষি বিল নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন বিরোধীরা-বিজেপি নেতা জয় প্রকাশ মজুমদার কালীগঞ্জে সরকারি চাকরি দেওয়ার নামে তপন সাধুর প্রতারণা! কুষ্টিয়ার দাদা রাইস ব্রান্ডের নামে বরিশাল বাজারে যাচ্ছে নিন্মমানের চাল-
ঘোষণা:

সরকারি বাসভবনে ঢুকে বাবাসহ ইউএনওকে কুপিয়ে জখম

নাসির উদ্দিন মজুমদার : দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম (৩৫) ও তার বাবা ওমর আলীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। আহত ইউএনও রংপুর ডক্টরস ক্লিনিকে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। তার বাবা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ইউএনওর সরকারি বাসভবনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এদিকে ঘটনার পর উপজেলা পরিষদ চত্বর ঘিরে রেখেছে প্রশাসন। দিনাজপুর -৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক, দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন।

জানা যায়, বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে একদল দুর্বৃত্ত ইউএনওর সরকারি আবাসিক ভবনে ঢুকে ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করে। এ সময় তার চিৎকারে তার সঙ্গে থাকা বাবা ছুটে এসে মেয়েকে বাঁচানোর চেষ্টা করলে দুর্বৃত্তরা তাকেও কুপিয়ে যখম করে। তার পিতা রাজশাহী বাগমারার মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখের উপর দুর্বৃত্তদের নৃশংস হামলার ঘটনায় হতবাক তার পরিবার ও বাগমারা গ্রামবাসী।

আহত মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখের ভাই বাগমারা ভোকেশনাল স্কুলের সুপারিন্টেন্ডেন্ট মজিবর রহমান তার ভাই ও ভাতিজির উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

জানা যায়, বাগমারা উপজেলার গনিপুর ইউনিয়নের বাগমারা গ্রামের ওমর আলী শেখ বিএডিসিতে চাকরি করতেন। নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলা থেকে সর্বশেষ তিনি ২০১১ সালে অবসর গ্রহণ করেন। চাকরির সুবাদে মহাদেবপুর থাকাকালীন সেখানকার দক্ষিণ দুলালপাড়ায় জমি কিনে বাড়ি নির্মাণ করেন। এরপর থেকে সেখানেই বসবাস করলেও বাগমারায় বসবাসরত তিন ভাই ও আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন।

ওমর আলী শেখের চার সন্তান। তার তৃতীয় সন্তান ওয়াহিদা খানম দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। জামাই মেজবাহ উদ্দিন রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। প্রায় দুই বছর ধরে মেয়ে ঘোড়াঘাটের ইউএনও হিসেবে কর্মরত আছেন। মেয়ের উপর হামলার সময় ওমর আলী শেখ সেখানেই অবস্থান করছিলেন এবং তিনিও হামলার শিকার হন।

পরে অন্যান্য কোয়ার্টারের বাসিন্দারা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। এ সময় তাদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদেরকে রংপুরে পাঠানো হয়। সেখানে ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে রংপুর ডক্টরস ক্লিনিকে আইসিইউতে ও তার বাবাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঠিক কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা জানা যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

মোঃ আবদুল মতিন,জেলা প্রশাসক ,গাইবান্দা।বাংলাদেশ“রিপোর্টার্স ক্লাব”চট্রগ্রাম এর সভাপতি-মোঃজামাল চৌধরী,সিনিয়র সহ-সভাপতি-নাসির উদ্দিন মজুমদার,সাধারণ সম্পাদক-মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম।বাগমারা গ্রামের আশরাফুল ইসলামসহ অনেক গ্রামবাসীই তাদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন