শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঈদ-এ মিলাদুন্নবী শোভাযাত্রা নিয়ে সংশয়ে আছেন কমিশনার! নড়াইলের পল্লীতে সরকারি টেন্ডার ও চিঠি ছাড়া রাস্তার গাছ কাটলো কারা কুষ্টিয়া পৌর মেয়র হিসেবে আতাউর রহমান আতার কোনো বিকল্প নেই সাইফুদ দৌলা তরুণ। সিলেটগামী ট্রেনের সিডিউল হঠাৎ বাতিল!! কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভুয়া সনদ বিক্রির অন্তরালে জড়িত কারা উদঘাটন জরুরী- জামিন পেলেন সব হারানো সাহসী সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা ওসি প্রদীপের মিথ্যা সাজানো সকল মামলা থেকে- খুলনায় স্কুলছাত্রী লামিয়া গুলিবিদ্ধ- একুশে পদক প্রাপ্ত প্রখ্যাত সাহিত্যিক, সাংবাদিক রাহাত খানের মৃত্যুতে জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শোক বিশ্বাসপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে-আবিদা আজাদ প্রতারক মকলেচ কুষ্টিয়া ডিবি পুলিশের হাতে আটক-
ঘোষণা:

সুন্দরবনে বাঘিনীর মৃত্যু-

স্টাফ রিপোর্টার হাসিবুর রহমান,সময়ের পথঃ-

সুন্দরবনে একটি রয়েল বেঙ্গল টাইগারের মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার সুন্দরবন পশ্চিম বিভাগের খুলনা রেঞ্জের আন্ধামানিক ফরেস্ট ক্যাম্পের পুকুরপাড় থেকে ওই বাঘটির মৃতদেহ উদ্ধার করে বন বিভাগ।

মৃত বাঘটির পেছনের বাম পায়ে এবং সামনের ডান পায়ে ক্ষত ছিল। অসুস্থতার কারনে বাঘটির মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে বনবিভাগ প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে। তবে বাঘটির মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানতে প্রাণি সম্পদ বিভাগ শরীরের বিভিন্ন অংশের নমুনা সংগ্রহ করে তা ঢাকা পরীক্ষাগারে (ফরেনসিক) পাঠিয়েছে। গত শনিবার রাত থেকে সাংবাদিকদের কাছে সুন্দরবনে বাঘের মৃত্যুর খবর আসলেও তা বনবিভাগ নিশ্চিত করে কিছুই বলছিল না। রোববার রাতে বনবিভাগ স্থানীয় সাংবাদিকদের বাঘের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করে। মৃত বাঘটি একটি বাঘিনী। বাঘিনীর উচ্চতা তিন ফুট এবং লম্বায় লেজসহ সাত ফুট

বয়স হবে ১৪ থেকে ১৫ বছর। এর আগে ২০১৯ সালের ২০ আগস্ট সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের ছাপড়াখালী থেকে একটি এবং ২০২০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি একই রেঞ্জের কোকিলমনি টহল ফাঁড়ি সংলগ্ন কবরখালি খালের চর থেকে একটি মৃত বাঘ উদ্ধার করে বনবিভাগ। সুন্দরবন পশ্চিম বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. বশিরুল আল মামুন বলেন, পশ্চিম বিভাগের খুলনা রেঞ্জের আন্ধারমানিক ফরেস্ট ক্যাম্পের আশেপাশে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে একটি রয়েল বেঙ্গল টাইগার ঘোরাঘুরি করছিল। বাঘের ঘোরাঘুরি দেখে ক্যাম্পের কর্মকর্তা কর্মচারিরা ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে ওঠেন। তারা প্রাণ ভয়ে ক্যাম্প থেকে বাইরে কোথাও বের পর্যন্ত হননি। সর্বশেষ গত শুক্রবার সকালে ক্যাম্পের পাশের পুকুরপাড়ে বাঘটিকে তারা দেখতে পান।

অনেক সময় পার হলেও বাঘটির স্থান পরিবর্তন না দেখে ক্যাম্পের সদস্যদের সন্দেহ হয়। তখন তারা ক্যাম্প থেকে বের হয়ে দূর থেকে দেখেন বাঘটির পাশে মাছির আনা গোনা করছে। পরে তারা কাছে গিয়ে দেখেন বাঘটি মরে পড়ে আছে। ক্যাম্পের সদস্যরা বিষয়টি জানালে আমি প্রাণি সম্পদ বিভাগকে সাথে নিয়ে শনিবার সকালে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে প্রাণি সম্পদ বিভাগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বাঘটির পেছন ও সামনের পায়ে ক্ষত দেখতে পান। পেছনের বাম পায়ের নিচের অংশ (থাবা) নেই। বাঘটি তার বিচরণ এলাকায় অন্য কোন প্রাণির সাথে বিবাদে জড়িয়ে মারামারি করে আহত হয়। শারীরিক অসুস্থার কারনে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি।

বাঘটির মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানতে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার পরীক্ষাগারে পাঠানো হেেয়েছে। পরে বাঘটিকে আন্ধারমানিক এলাকায় মাটি চাপা দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এটি বাঘিনী। তার বয়স হবে আনুমানিক ১৪ থেকে ১৫ বছর। বাঘিনীর উচ্চতা তিন ফুট এবং লম্বায় লেজসহ সাত ফুট। বাঘ সাধারণ ১৬ থেকে ২০ বছর বয়স পর্যন্ত বেঁচে থাকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন