বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জুয়াড় স্পট দুমড়ে মুচড়ে দিয়েছে সিএমপি!‌‌‌‌! ফুলবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতিপূরণ বাবদ নগদ অর্থ প্রদান যশোর উন্নয়ন ও বিভাগ বাস্তবায়ন পরিষদ তাদের ১১ দফা বাস্তবায়, নড়াইলে অনুষ্ঠিত সংবাদ। লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে মৃত ব্যক্তির নামে চেক নিয়ে ১০ হাজার টাকা নজরানা নিলেন যুবলীগ নেতা কাঞ্চন। মৃত্যুর সাথে লড়াই করে হেরে গেলেন নড়াইলের শাওন। নড়াইলে শিশু পরিবারের আট এতিমকে সংশোধনের জন্য দুই মাসের ছুটি সার্ভেয়ার মান্নানের তেলেছমতি কারবার : টাকা দিলে বাঁকা : না দিলে ফাঁকা রামগড়ে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের ১০ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত পীর বজলুর রহমান ( বুজু) ফকিরের মৃত্যু । কুষ্টিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান কেরামত আলী বিশ্বাসসহ ১১জনের বিরুদ্ধে জমি জালিয়াতির অভিযোগ
ঘোষণা:

হাতীবান্ধায় ইউপি উপ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর উপর হামলা আহত-১০

মোঃ শাহজাহান-সাজু লালমনিরহাট প্রতিনিধি,সময়ের পথঃ-

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় গড্ডিমারী ইউনিযন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে অপর প্রার্থীর বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (১৬ অক্টোবর/২০২০) বিকেলে নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ তুলেন হামলায় আহত স্বতন্ত্র প্রার্থী আকতার হোসেন খন্দকার (মোটর সাইকেল)।

সংবাদ সম্মেলনে আকতার হোসেন বলেন, আগামী ২০ অক্টোবর গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সংবাদ সম্মেলনে মোটর সাইকেল প্রতিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটের মাঠে প্রচারনা চালাচ্ছেন। দিন দিন সমর্থক বৃদ্ধি পাওয়ায় হিংসা পরায়ন হয়ে তার উপর হামলা ও হুমকী অব্যহত রেখেছে প্রতিদ্বন্দ্ব প্রার্থী আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল (নৌকা)।
এ নিয়ে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, রির্টানিং অফিসারসহ বিভিন্ন দফতরে একে একে ৬টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। কিন্তু প্রশাসন অভিযোগ আমলে না নেয়ায় দিন দিন বেপড়োয়া ভাবে আমার কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা চালাচ্ছে নৌকার প্রার্থী আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল ও তার লোকজন। নৌকার প্রার্থী জনসভায় প্রকাশ্যে আমাকে মেরে ফেলার ঘোষনা দিলেও প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আকতার হোসেন আরো বলেন, শুক্রবার(১৬ অক্টোবর) নিজ বাড়ির অদুরে গড্ডিমারী মেডিকেল মোড়ে গনসংযোগ করার সময় নৌকার প্রার্থী শ্যামলের লোকজন অতর্কিত ভাবে আমার উপর হামলা চালায়। আমাকে বাঁচাতে আমার স্ত্রী ও ভাই এগিয়ে এলে তাদের উপরও হামলা চালায় তারা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে পুলিশের সামনে আমাদের উপর ইট, পাথর ছুড়ে মারে। এতে আমি আমার স্ত্রী ও ভাইসহ ৮জন কর্মী সমর্থক আহত হয়েছি। আহতদের হাতীবান্ধা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রচারনায় বাঁধা দিয়ে যারা বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে ভোট কেন্দ্রে তাদের তান্ডব দমাবে কিভাবে?। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ পরিবেশে ভোট গ্রহন করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহবান জানান তিনি। সেই সাথে ভোট গ্রহনের দিন র্যার অথবা আর্মি মাঠে রাখার অনুরোধ নির্বাচন কমিশনের প্রতি।

মোঃ শাহজাহান-সাজু, লালমনিরহাট প্রতিনিধি।
১৬ অক্টোবর’২০২০।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন