1. admin@somoyerpoth.com : somoyerpoth.com :
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নানা আয়োজনে পালিত হলো ১৫ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। মঙ্গোলিয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে দারুন জনপ্রিয় অনলাইন শিক্ষা র‍্যাবের হাতে মাদকসহ উলিপুরের সমাজসেবা কর্মকর্তাসহ গ্রেফতার-২ কুড়িগ্রামে মৎস্য বিভাগের মা ইলিশ সংরক্ষণে অভিযান। সিলেটের বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা আবু নছরের মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক ছাতক পৌরসভার নামে টোল আদায় বন্ধে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান মালিক ও শ্রমিক সমিতির সভা বড়লেখায় ভোটকেন্দ্র পুনর্বহাল ও নতুন ভোটকেন্দ্র অন্তর্ভুক্ত না করার দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা সিলেটে সংবাদকর্মীকে দফায় দফায় মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অপচেষ্টা : অভিযোগ সিলেটে অর্থের অভাবে আটক পড়ে আছে ৪২ হাজার ভবনের পরিক্ষা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী’র বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রান বিতরণ

কুষ্টিয়ায় জিগজ্যাগ ইটভাটা মালিক সমিতির মতবিনিময় ও আলোচনা সভায় মান্নান খান

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ায় জিগজ্যাগ ইটভাটা মালিক সমিতির মতবিনিময় ও আলোচনা সভায় মান্নান খান

কে এম শাহীন রেজা, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।।

কুষ্টিয়া জেলার জিগজ্যাগ ইটভাটা মালিক সমিতির নতুন কমিটির মতবিনিময় ও আলোচনা সভা কুষ্টিয়া শহরের চিলিচ পার্কে ১২ তারিখ মঙ্গলবার সকাল ১১ টার সময় অনুষ্ঠিত হয় । উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জিগজ্যাগ ভাটা মালিক সমিতির সভাপতি হাজী মো: নুরুজ্জামান হাবলু মোল্লা, সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমারখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কুমারখালী উপজেলার চেয়ারম্যান মান্নান খান ও সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম লিটু। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জিগজ্যাগ ভাটা মালিকের সকল নেতৃবৃন্দ।

জিগজ্যাগ ভাটা মালিক সমিতির সভাপতি নুরুজ্জামান হাবলু মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক মান্নান খান ও জাহিদুল ইসলাম লিটু তাদের বক্তব্যে সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অমান্য করে কোন ভাটা মালিক জীববৈচিত্র্য বিনষ্ট করে কয়লা ব্যবহারের পরিবর্তে কোন ভাটাতেই কাঠ খড়ি ব্যবহার করা যাবে না। তারা এটাও বলেন, ২০১৩ সালে ড্রাম চিমনি বিলুপ্তি ঘোষণা করেন তবুও কুষ্টিয়া জেলাতে এখনো প্রচুর ড্রাম চিমনি বসিয়ে কাঠ দিয়ে ইট পুড়িয়ে যাচ্ছেন কিছু অসাধু প্রশাসনের নির্দেশে। কুষ্টিয়াতে প্রায় ২০০ টির মত ইটভাটা রয়েছে তার মধ্যে ৫০টি রয়েছে জিগজ্যাগ ভাটা। ১২০ ফিট ফিক্সড চিমনি ইটভাটাতেও কয়লা ব্যবহার না করে খড়ি ব্যবহার করে চলেছেন। যার ফলে আমরা মোটা মালিকগণ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি।

নেতৃবৃন্দরা এটাও বলেন বন উজাড় করে এখন আর ঐসকল অসাধু ইটভাটা মালিকদের ভাটা চালাতে দিব না, প্রয়োজনে আমরা উপর মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করব, প্রয়োজন হলে মানববন্ধন করব তবুও পরিবেশের ভারসাম্য বিনষ্ট করতে দিব না। অবশেষে উক্ত আলোচনা সভায় সকলের সর্ব সম্মতিক্রমে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে ইটভাটার কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত