1. admin@somoyerpoth.com : somoyerpoth.com :
শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কুষ্টিয়ায় শত-শত কর্মী নিয়ে ব্যান্ড বাজিয়ে বিতর্কিত নৌকা প্রার্থীর মনোনয়ন জমা কুষ্টিয়ায় ১০ নং উজানগ্রাম ইউপি আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত তুমুল ভোট-যুদ্ধের আভাস সদরের মোগলবাসা ইউনিয়নের নির্বাচনে। হরিণাকুণ্ডুতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রাম জেলায় বাল্যবিয়ে বেড়েছে ৭৪ শতাংশ হরিণাকুণ্ডুতে ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হরিণাকুণ্ডুতে উপজেলা পরিষদ সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত প্রচার-প্রচারণায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য প্রার্থী শ্রীমতি মাধবী রাণী। সিলেটে অবৈধ দখল ও বজ্যের চাপে বিপর্যস্ত সুরমা নদী নিখোঁজের চার দিন পর ডোবা থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার।

কুড়িগ্রামে ২৩ কেজি বাঘাইর মাছ ২৫ হাজারে বিক্রি

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪১ বার পড়া হয়েছে

কুড়িগ্রামে ২৩ কেজি বাঘাইর
মাছ ২৫ হাজারে বিক্রি

রুহুল আমিন রুকু, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নে ব্রহ্মপুত্র নদে ২৩ কেজি ওজনের একটি বাঘাইড় মাছ ধরা পড়েছে। রবিবার সকালে জেলে মাইদুল ইসলামের জালে ধরা পড়ে মাছটি। বিশালাকার মাছটি দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমান নদের পারে।
যাত্রাপুর হাটে উন্মুক্ত ডাকের মাধ্যমে ৮শ টাকা কেজি দরে ১৮ হাজার ৪শ টাকায় মাছটি কিনে নেন মাছ ব্যবসায়ী সুমন মিয়া।
পরে তিনি কুড়িগ্রাম আদর্শ পৌর বাজারের মাছটি কেটে খুচরা কেজি প্রতি এক হাজার ১শ টাকা দামে ২৫ হাজার ৩শ টাকায় বিক্রি করেন তিনি।
জেলে মাইদুল ইসলাম বলেন, সকালে ব্রহ্মপুত্র নদে প্রত্যেক দিনের মতই জাল ফেলেছি। জাল টানতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছিল। পরে জাল টেনে তুলে দেখি বড়সড় একটা বাঘাইড় মাছ আটকা পড়েছে। বাজারে নিয়ে যাবার আগে মাছ ব্যবসায়ী সুমন ১৮হাজার ৪শ টাকায় কিনে নেয়। বর্তমানে প্রায় সময় ব্রহ্মপুত্র নদে জেলেদের জালে বড়বড় মাছ ধরা পরে। এতে করে আমাদের মতো গরীব জেলেদের আর্থিক উপকার হচ্ছে।
যাত্রাপুর এলাকার বাসিন্দা রিপন আহমেদ বলেন,রবিবার সকালে জেলে মাইদুল ইসলাম ব্রহ্মপুত্র নদে জাল ফেলেন। হঠাৎ তার জালে একটি বড় বাঘাইড় মাছ ধরা পড়ে। পরে ওজন দিয়ে দেখা যায় ২৩ কেজি হয়েছে মাছটি।
মাছ ব্যবসায়ী সুমন বলেন,বাজারে এ মাছের চাহিদা রয়েছে। বিভিন্ন ঘাট থেকে এমন বড় মাছ কিনে এনে কেটে খুচরা বিক্রির করেন তিনি। এতে ভালো লাভ থাকে তার।
জেলা মৎস্য কর্মকর্তা কালিপদ রায় বলেন, বর্তমানে ব্রহ্মপুত্র নদের বিভিন্ন এলাকায় নিয়মিতই বড় বড় মাছ ধরা পড়ছে। এতে জেলে ও ব্যবসায়ীরা উভয়ই অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হচ্ছেন। আমরা এই এলাকায় এ ধরনের মাছ রক্ষা এবং মাছের বংশ বিস্তার করতে জেলা মৎস্য বিভাগ কাজ করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত