1. admin@somoyerpoth.com : somoyerpoth.com :
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
সিলেটে ধর্ষনের অভিযোগে টিকটক মান্না গ্রেফতার নানা আয়োজনে পালিত হলো গুইমারা উপজেলা পরিষদের ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী মাটিরাঙ্গায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম সড়কের শুভ উদ্বোধন। সিলেটের বিএনপির সমাবেশে বক্তব্য দিলেন না আরিফ-মুক্তাদির লায়ন মোঃ নূরল ইসলাম, নড়াইল জেলা ও লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর মাজার যিয়ারত করেন। দলীয় কার্যালয়ে মনোনয়ন জমা দিলেন উজানগ্রাম ইউপি’র কান্ডারী সানোয়ার মোল্লা বিআরবি গ্রুপের চেয়ারম্যান মজিবর রহমানকে সংবর্ধনা প্রদান সিলেট জেলার ৩য় ধাপের ১৬ টি ইউপির নির্বাচনী ফলাফল প্রতীক বরাদ্দের আগেই ইচ্ছে মত প্রচারণা সিলেটে পরকিয়ার জেরে হত্যার অভিযোগে নারীসহ দুজনের মৃত্যুদন্ড

ফিলিপাইনের মেয়ে ফুলবাড়ীয়ায় ইউপি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৯৪ বার পড়া হয়েছে

ফিলিপাইনের মেয়ে ফুলবাড়ীয়ায় ইউপি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি রবিউল ইসলাম হৃদয়ঃ
ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার ১১নং রাধাকানাই ইউনিয়ন থেকে ইউপি নির্বাচনে ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে জেসমিন পান চার হাজার ৪৯৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বক প্রতীকের শিমু আক্তার পান এক হাজার ৮৩৭ ভোট।

ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার রাধাকানাই ইউনিয়নে ফিলিপাইনের মেয়ের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জয়ের মধ্যামেই বিদেশী মহিলা মেম্বার পেলো বাংলাদেশ। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সংরক্ষিত (১, ২ ও ৩ নম্বর) ওয়ার্ডে তিনি মাইক প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

জীন ক্যাটামিন পেট্রিয়াকা পড়াশোনা করেছেন সেখানকার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিশারিজ বিভাগে। গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্নের পর সিঙ্গাপুরে চাকরি করতে গিয়ে পরিচয় হয় বাংলাদেশি তরুণ জুলহাস উদ্দিনের সঙ্গে। পরিচয় থেকে প্রেম, এরপর বিয়ে।

২০১০ সালে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয় ফিলিপাইনের মেয়ে বর্তমানে বাংলাদেশের নাগরিক জীন ক্যাটামিন পেট্রিয়াকা। তিনি খ্রীস্টান থেকে মুসলিম হওয়ার পর নাম রাখেন জেসমিন আক্তার জুলহাস।

জম্মসূত্রে ফিলিপাইনের নাগরিক হলেও , বিবাহসূত্রে বাংলাদেশের নাগরিক জেসমিন আক্তার জুলহাস। জীন ক্যাটামিন জুলহাসের প্রেমের টানে মা বাবা ছেড়ে চলে আসেন ১০ বছর আগে বাংলাদেশে । তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

বিজয়ী হওয়ার পর জেসমিন গ্রামের রাস্তায় বেরোলেই উৎসুক মানুষ তাকে দেখতে ভিড় করছেন। তার মুখে ইংরেজি কথা শুনে অনেকেই আনন্দ প্রকাশ করেন। স্বামী জুলহাস মিয়া দোভাষী হিসেবে সাধারণ মানুষের কথা ইংরেজিতে অনুবাদ করে বুঝিয়ে দেন জেসমিন আক্তারকে।

ফুলবাড়িয়া উপজেলার রাধাকানাই ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের দবরদস্তা গ্রামের আব্দুস সামাদ মণ্ডলের ছেলে জুলহাস। ১৯৯৮ সালে সিঙ্গাপুরের একটি কোম্পানিতে চাকরি করার সময় সহকর্মী জিন ক্যাটামিন পেট্রিয়াকার সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

পরে চাকরি ছেড়ে জুলহাস বাংলাদেশ চলে আসেন, জীন ক্যাটামিন পেট্রিয়াকাও তার দেশে ফিলিপাইনে চলে যান। দুজনের ফোনে তাদের যোগাযোগ ছিল।

২০১০ সালে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের আগে ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন পরে জিন ক্যাটামিন পেট্রিয়াকার নতুন নাম হয় জেসমিন আক্তার জুলহাস। বাংলাদেশে আসার পর তিনি এ দেশের নাগরিকত্ব পান।

জুলহাস জানান, জেসমিন মানুষকে নানাভাবে উপকার করার চেষ্টা করেন। তার ভেতর নেতৃত্বের গুণ রয়েছে। তাই এলাকাবাসীর অনুরোধে মেম্বার প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন জেসমিন আক্তার।

জেসমিন আক্তার জুলহাস বলেন, আমার স্বামী জুলহাসের জন্য নিজের দেশ ও বাবা-মাকে ছেড়ে বাংলাদেশ ছুটে আসি। এ দেশের মানুষের সেবা করার সুযোগ পেয়ে আমি আনন্দিত, এলাকার গরীব দুখী মানুষের জন্য কিছু করতে চাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত